শ্রীমঙ্গল পৌর নির্বাচনঃ মাঠে লড়বে দুই হেভিওয়েট প্রার্থী

  • আপডেট টাইম : অক্টোবর ২৫ ২০২১, ১০:৪৬
  • 54 বার পঠিত
শ্রীমঙ্গল পৌর নির্বাচনঃ মাঠে লড়বে দুই হেভিওয়েট প্রার্থী

 

মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃ
আগামী ২৮ নভেম্বর শ্রীমঙ্গল পৌরসভার নির্বাচন। পর্যটন নগরী শ্রীমঙ্গলে দীর্ঘ ১০ বছর পর হতে যাচ্ছে পৌরসভা বহুল প্রতীক্ষিত এই নির্বাচন। ব্যবসা-বাণিজ্য, উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা, বহু ধর্ম ও ভাষাভাষী মানুষের মধ্যে বিরাজমান সম্প্রীতি এবং নৈসর্গিক সৌন্দর্যের পর্যটন কেন্দ্র হিসেব দেশ-বিদেশে পরিচিত শ্রীমঙ্গল উপজেলা। নানা জটিলতা কাটিয়ে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক দীর্ঘ ১০ বছর পর শ্রীমঙ্গল পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠানের ঘোষনা করায় সাধারণ ভোটারের মধ্যে আগ্রহ দেখা গেছে।
নির্বাচনকে ঘিরে এখন সরগরম হয়ে উঠেছে শহরের রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে চায়ের দোকানগুলো। সম্ভাব্য প্রার্থীরা এরিমধ্যে সাধারণ ভোটারের সাথে যোগাযোগ বাড়িয়ে দিয়েছেন। বিভিন্ন স্থানে উঠান বৈঠক করে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রচারণা চালাতে দেখা গেছে।
এ নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদন্ধীতায় রয়েছে দুই মেরুর দুই হেভিওয়েট প্রার্থী। তাদের একজন হলেন, বর্তমান মেয়র বিশিষ্ট শিল্পপতি মো. মহসিন মিয়া মধু। বিএনপি ঘরোনার মহসিন মিয়া মধু স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটের মাঠে অংশগ্রহণ করছেন।
অন্যজন হলেন, ক্লিন ইমেজের অধিকারী মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক ও দ্বারিকা পাল মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ মনসুরুল হক। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী।
নির্বাচনে জাতীয় পার্টি ও কমিউনিষ্ট পার্টি থেকে কোন প্রার্থীর নাম ঘোষনা করা হয়নি। আর দলীয় সিদ্ধান্তে বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেয়া থেকে বিরত রয়েছে। এছাড়াও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনী মাঠে থাকছেন, সাবেক এমপি ও পৌর মেয়র মো. আহাদ মিয়ার ছেলে তরুণ ব্যবসায়ী মো. জাহাঙ্গীর আলম সোহাগ।
মো. মহসিন মিয়া মধু ১৯৯৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত তিন বার পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হয়ে আসছেন। তাঁর আমলে এই পৌরসভা ‘খ’ শ্রেণী থেকে ‘ক’ শ্রেণীতে উন্নীত হয়। এই সময়ে পৌরসভার আধুনিকায়ন, পৌর এলাকায় মার্কেট নির্মাণ, ফুটপাত ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা, রাস্তাঘাট,পৌরবাসীর সুপেয় পানির সরবরাহ ব্যবস্থাসহ নানা উন্নয়নমূলক কাজ সাধিত হয়েছে। তবে শহরে জানজট ও ফুটপাত বেদখল নিয়ে অনেক মানুষের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে।
শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র জমা দেয়ার শেষ তারিখ ২ নভেম্বর, যাচাই বাছাই ৪ নভেম্বর, প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১১ নভেম্বর, এবং প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হবে ১২ নভেম্বর। আগামী ২৮ নভেম্বর সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এর মাধ্যমে ভোট গ্রহন করা হবে।
সর্বশেষ ২০১১ সালে এই পৌরসভায় নির্বাচন হয়েছিল। পরবর্তীতে সীমানা জটিলতা ও উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞার কারণে এ পৌরসভার নির্বাচন হয়নি। মৌলভীবাজার জেলার রূপসপুর ও সুনগইড় মৌজার সমন্বয়ে গঠিত শ্রীমঙ্গল পৌরসভা। ২ দশমিক ৫৮ বর্গ কিলোমিটার এলাকা ও ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে শ্রীমঙ্গল পৌরসভায় মোট ভোটার রয়েছে ২০ হাজার ৯৪ জন। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর পৌরসভা শ্রেনী বিন্যাসে শ্রীমঙ্গল পৌরসভা ‘গ’ শ্রেনীর পৌরসভা সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে ১ লা জুলাই ১৯৯৪ তে ‘খ’ শ্রেনী এবং ৪ঠা ফেব্রুয়ারী ২০০২ এ ‘ক’ শ্রেনীতে উন্নীত হয়।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর