দিন দিন অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিসগুলোর জনপ্রিয়তা বেড়েই চলেছে সারা দুনিয়ায়।

  • আপডেট টাইম : অক্টোবর ১৩ ২০২০, ০০:৪৭
  • 86 বার পঠিত
দিন দিন অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিসগুলোর জনপ্রিয়তা বেড়েই চলেছে সারা দুনিয়ায়।

মীম টিভি নিউজ:-
২০২০ সাল যেন আমাদের জীবনে এসেছে সবকিছু পাল্টে দিতে। করোনা মহামারিতে যখন গোটা বিশ্ব বিপর্যস্ত, তার প্রভাবে পাল্টে যাচ্ছে প্রতিদিনের চেনা সবকিছুর খোলনলচে। প্রভাব পড়েছে আমাদের চিরচেনা বিনোদন দুনিয়াতেও। বন্ধ রয়েছে সিনেমা হলগুলো। অবশ্য এই শতাব্দীতে এসে সারা দুনিয়ার মানুষের জীবন এতটাই ব্যস্ত আর যান্ত্রিক হয়ে উঠেছে যে, সিনেমা হলে যাওয়া কিংবা নির্দিষ্ট সময়ে টিভি সেটের সামনে বসার সময় আর সুযোগটুকু ধীরে ধীরে যেন নাই হয়ে যাচ্ছে জীবন থেকে।
আমাদের সিনেমা আর সিরিজ দেখা যেন বন্ধ করার কোনো জো নেই! আর আমরা সবচেয়ে জনপ্রিয় বিকল্প হিসেবে বেছে নিয়েছি অনলাইনকে। ল্যাপটপ, মোবাইল বা ট্যাবে অনায়াসেই দেখে ফেলছি সবকিছু। আবার সেখানেও লেগে চলেছে বিবর্তনের ছোঁয়া।
নতুন সিনেমা বা সিরিজ বের হলে হন্যে হয়ে খোঁজা লাগত সেটির ডাউনলোড লিংক। বিশ্ববিখ্যাত সব সিনেমা বা সিরিজের সিডি কেনা বা হলে গিয়ে দেখা সময় নেই। শ্রেষ্ঠ অডিও ও ভিডিও কোয়ালিটিতে দেখে নিতে পারি আমরা অনলাইন এ। সত্যি বলতে কী, এখন বাস্তবতা এমন দাঁড়িয়েছে যে, পৃথিবী যদি সুস্থও থাকত, তবু সিনেমা হলের সামনে গিয়ে টিকিটের জন্য লাইন দিত কিংবা একটি সিরিজের এক পর্ব দেখার জন্য সারাদিন অপেক্ষা করে ঘড়ির কাঁটা মেনে পূর্বনির্ধারিত সময়ে টিভির সামনে বসা সময় নেই।
অনলাইন স্ট্রিমিং সার্ভিসগুলো দারুণ সাশ্রয়ীও বটে। আপনি সিনেমা হলেই যান কিংবা বাসায় ডিশ কানেকশন নেন, তার পেছনে আপনাকে বেশ বড় অঙ্কের অর্থ ব্যয় করতেই হবে। অথচ সেই খরচের তুলনায় অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাসিক খরচ নিতান্তই কম। তাই হিসাব কষে দেখা যাবে, বিনোদনের জন্য অনলাইনে অর্থ বিনিয়োগ করাই সবচেয়ে লাভজনক, বিশেষত তরুণ প্রজন্মের জন্য!
এসব কারণেই দিন দিন অনলাইন স্ট্রিমিং সার্ভিসগুলোর জনপ্রিয়তা বেড়েই চলেছে সারা দুনিয়ায়। আগস্ট মাসে প্রাপ্ত তথ্য থেকে জানা যাচ্ছে, বিশ্বব্যাপী সবচেয়ে জনপ্রিয় স্ট্রিমিং সার্ভিস হলো নেটফ্লিক্স, যাদের সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যা ১৯ কোটিরও বেশি! দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওর সাবস্ক্রাইবার ১৫ কোটি। কেবল গত বছরের শেষ দিকে যাত্রা শুরু করে ইতোমধ্যেই ৬ কোটির বেশি সাবস্ক্রাইবার পেয়ে গেছে ডিজনি প্লাস। সেইসাথে বেশ ভালো সাড়া পাচ্ছে এইচবিও কিংবা অ্যাপল প্লাসও।
বাংলা বিনোদন সেক্ষেত্রে বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য সার্ভিসগুলোর তালিকায় আসবে বায়োস্কোপ, বঙ্গ, র‍্যাবিটহোলবিডি জাগো বিডি, ক্যাবল টিভি অ্যাপ প্রভৃতির নাম।
বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে বায়োস্কোপের লাইভ টিভি ও লাইভ স্পোর্টস পরিষেবা নিঃসন্দেহে অসাধারণ। এদেশের মোট জনসংখ্যার একটি বড় অংশ তরুণ, যাদের পক্ষে আসলে সবসময় টিভি দেখার সুযোগ বা সম্ভাবনা নেই। সবার পক্ষে হয়তো টিভি সংযোগ নেয়া সম্ভব হয় না, পরিবারের সাথে থাকলে, নিজেদের পছন্দের অনুষ্ঠানগুলো সবসময় দেখা যায় না। নিজেদের পছন্দের চ্যানেলগুলো দেখার সুযোগ করে দিচ্ছে। এছাড়া যেহেতু বাংলাদেশের তরুণরা ক্রীড়াপ্রেমী, রাস্তায় চলার পথে ক্রিকেট কিংবা রাত জেগে ফুটবল দেখতে পছন্দ করে, তাদের সেই চাহিদাও মেটাচ্ছে বাংলাদেশ ।
নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠিত করেছে দেশের প্রধানতম অনলাইন স্ট্রিমিং সার্ভিসে। নেটফ্লিক্স বা অ্যামাজন প্রাইমের মতোই ।
,…………………………
তথ্য সূত্র: Netflix, roar Bangla

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর